Monday, May 23, 2022

”দা ফ্রেশ প্রিন্স” থেকে হলিউডের হার্টথ্রব অভিনেতাঃ উইল স্মিথ

উইলিয়ার্ড ক্যারল স্মিথ। সবাই তাকে চিনি উইল স্মিথ  নামে -যিনি হচ্ছেন পৃথিবীর অনেক বড় অভিনেতা, রাপার, গায়ক এবং মিডিয়া তারকা। তিনি করেছেন অনেক জনপ্রিয় ছবি। তিনি অনেকেরই প্রিয়। তিনি অনেক পুরস্কারও পেয়েছেন। তাকে অস্কার এও দুইবার মনোনয়ন দেওয়া হয়।

উইল স্মিথ ১৯৬৮ সালের ২৫ সেপ্টেম্বর জন্মগ্রহণ করেন। উইল স্মিথ এর স্বপ্ন ছিল রাপ গান করার। তিনি এম আই টি থেকে স্কলারশিপ পেয়েছিলেন কিন্তু তিনি তা গ্রহণ করেন নি। তিনি বলেন তিনি রাপ গান করতে চান এইজন্য তিনি কলেজে যাবেন না। তিনি এরপর রাপ গানের জন্য খ্যাতি পান তার নতুন নাম “দা ফ্রেশ প্রিন্স” দিয়ে। স্মিথ ১৯৮৯ সালে রাপ উপস্থাপনার জন্য গ্র্যামি পুরস্কার পান। বর্তমানে তার ছেলে মেয়ে ও রাপ গান করে।

স্মিথকে ১৯৮৯ দিকে তার ইনকাম ট্যাক্স নিয়ে বিপদে পরতে হয়।এরপর তিনি আর্থিক অবস্থায় বিপদে পরে যান। কিন্তু ১৯৯০ এর দিকে এনবিসি তাকে একটি সিটকম নাটক করার প্রস্তাব দেন যার নাম “দা ফ্রেশ প্রিন্স অফ বেল-এয়ার”। এই নাটক করার পর থেকেই তার অভিনয় জীবন শুরু হয়। এই নাটকটি তার রাপ গানের চরিত্র নিয়ে করা হয়।

উইল স্মিথ নাটক করার পর কয়েকটি ছবি করেন। কিন্তু তা এতো খ্যাতি পায় নি। তার প্রথম ব্লকবাস্টার মুভি ছিল ১৯৯৫ সালের “ব্যাড বয়স”। এরপর থেকে তিনি আমেরিকার ছোট-বড় পরিচালকদের চোখে আসেন। এরপর তিনি করেন “ইন্ডিপেন্ডেন্স ডে” যা তার অনেক প্রশংসনীয় চলচ্চিত্র ছিল। তারপর তার কমারশিয়ালি সবচেয়ে বড় ব্লকবাস্টার ছিল ১৯৯৭ সালের ছবি “মেন ইন ব্লাক”। এই ছবিটি ৯০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বাজেটে ৫৮৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার আয় করে গোটা বিশ্বে। এই ছবির পরই উইল জনসাধারনের দৃষ্টিতে আসেন এবং তাদের প্রিয় হয়ে যান।

তিনি পরবর্তী তে আরও অনেক ছবি করেন। তিনি হলিউড এ বিশেষ স্থান করে নেন যখন তিনি ২০০১ সালে “আলি” ছবিতে বিশ্ব পরিচিত বক্সার “মুহাম্মদ আলি” এর অভিনয় করেন। তার অভিনয় এতটা ভাল ছিল যে তিনি এই ছবির জন্য একাডেমী পুরস্কার (অস্কার) মনোনয়ন পান। তিনি জিততে পারেন নি কিন্তু এই মনোনয়ন পাওয়া টাই তার হলিউড এ স্থান করে নেয়।

এরপর তিনি “মেন ইন ব্লাক ২” করেন। তারপর তার জনপ্রিয় ছবি গুলোর মধ্যে ছিল “ব্যাড বয়স ২” , “আই, রোবট” , “ দা পারসুট অফ হ্যাপিনেস”। এই ছবির জন্য ও তিনি অস্কার মনোনয়ন পান।

তিনি ১৯৯৭ সালে অভিনেত্রি “জাডা করেন পিঙ্কেট” কে বিয়ে করেন। তাদের দুইজন এর দুই সন্তান “জাডেন” এবং “উইলও” স্মিথ ও আছে। তার প্রথম স্ত্রী “শেরি যাম্পিনো” থেকে তার বড় ছেলে “ট্রে স্মিথ” জন্মগ্রহন করে। কিন্তু উইল স্মিথ এর তার প্রথম স্ত্রী এর সাথে ১৯৯৫ সালে তালাক হয়ে গেছে। উইল স্মিথ তার তিন সন্তান এবং স্ত্রী জাডা এর সাথেই থাকেন।

২০১২ সালে প্রায় ১০ বছর পর উইল স্মিথ এর ছবি “মেন ইন ব্লাক” এর তৃতীয় পরিচ্ছেদ মুক্তি পায়। কিন্তু তা ভক্তদের মন জয় করতে পারেনি। তার পরবর্তী ব্লকবাস্টার ছবির মধ্যে ছিল ২০১৫ সালের “ফকাস” এবং ২০১৬ সালের “সুইসাইড স্কোয়াড”। উইল স্মিথ তখন আবার জনসাধারণ এর দৃষ্টি তে আস্তে শুরু করেন।

সম্প্রতি ২০১৯ সালে তার ছবি “আলাদিন” মুক্তি পেয়েছিল যা সারা বিশ্বজুড়ে ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ছারিয়ে যায়। এই ছবিটি তার সম্ভবত সবচেয়ে বেশি সফলতা অর্জন করা ছবি। এই ছবিতে তিনি বিখ্যাত “জিনি” এর অভিনয় করেন। তাকে এই চরিত্রে একেবারে অন্যরকম এবং রোমাঞ্চক দেখা যায়।

সম্প্রতি উইল স্মিথ এর আরেকটি ছবি মুক্তি পেয়ছে অক্টোবর এর ৮ তারিখ। এই ছবির নাম “জেমিনি ম্যান”। এই ছবিটি প্রায় ২০ বছর ধরে আলোচনায় ছিল কিন্তু প্রোডাকশন শুরু করা যায় নি। এর কারন এই ছবিটির কাহিনি একই চেহারার ২ই জন মানুষ নিয়ে। যার মধ্যে একজন যুবক এবং আরেকজন তরুন। কিন্তু এই ছবির জন্য ১৯৯৯- ২০১০ পর্যন্ত এতো ভাল প্রযুক্তি ছিল না। কিন্তু এখন আছে। এই ছবিটির জন্য অনেক ভক্তরা উৎসাহিত। ছবিটি তে উইল স্মিথ কে অসাধারন দেখা যায়।

এই বছর উইল স্মিথ এর আরেকটি ছবি মুক্তি পাচ্ছে ২৫ ডিসেম্বর এ। এই ছবিটির নাম “স্পায়্স ইন ডিজগাইস”। এই ছবিটি একটি অ্যানিমেশন ছবি যার মধ্যে উইল স্মিথ এবং স্পাইডার ম্যান এর অভিনেতা টম হলান্ড অভিনয় করবেন।

কিং রিচার্ড’ ছবিতে অনবদ্য অভিনয়ের জন্য সেরা অভিনেতার পুরস্কার জিতেছেন উইল স্মিথ। এই ছবিতে টেনিস সুপারস্টার সেরেনা উইলিয়াম ও ভেনাস উইলিয়ামের বাবার চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। অন্যদিকে জেসিকা পুরস্কার জিতেছেন ‘দ্য আইজ অব টাম্মি ফায়ে’র জন্য।

মুভি ক্যাটাগরির আউটস্ট্যান্ডিং কাস্ট বিভাগে পুরস্কার জিতে নিয়েছে ‘কোডা’। ছবিটি একটি পরিবারকে ঘিরে যেখানে একটি মেয়ে ছাড়া সবাই বধির।

টেলিভিশন ক্যাটাগরিতে সেরা ড্রামা সিরিজের পুরস্কার জিতেছে ‘সাকসেশন।’ এই বিভাগে সেরা অভিনেতা হয়েছেন লি জাং-জাই (স্কুইড গেম) এবং সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার জিতেছেন হাইয়েওন জাং (স্কুইড গেম)। এই প্রথম কোনো কোরিয়ান তারকা এই বিভাগগুলোতে পুরস্কার জিতলো। এছাড়াও আউটস্ট্যান্ডিং অ্যাকশন পারফর্মেন্স পুরস্কার জিতেছে ‘স্কুইড গেম।’

উইল স্মিথ এর আরেকটি ছবি ২০২০ সালে মুক্তি পাবে। ছবিটি উইল এর “ব্যাড বয়স” সিরিজ এর পার্ট ৩। উইল বর্তমানে বিশ্বের ৮ম স্থান গ্রহণকারী অভিনেতা। এবং আর্থিক দিক দিয়ে বিশ্বের ১৭তম অভিনেতা হিসেবে আছেন।

২৮শে মার্চ,২০২০০ সোমবার সকাল ৭টা থেকে শুরু হয় স্ক্রিন অ্যাকটর্স গিল্ড অ্যাওয়ার্ডের (এসএজি) আসর অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে সেরা অভিনেতার পুরস্কার জিতেছেন উইল স্মিথ ও সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার জিতেছেন জেসিকা চ্যাস্টেইন।

Latest news
Related news