Tuesday, August 9, 2022

দীর্ঘক্ষণ চ্যাটিং করে আপনার শরীরের ভয়ানক কোনো ক্ষতি করছেন না তো?

আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা মোবাইল ফোনে কথা বলার তুলনায় ‘টেক্সট’ বা চ্যাটিং করতে বেশি স্বাচ্ছন্দবোধ করেন। প্রয়োজন ছাড়াও অনেকে ফোনে সব সময় চ্যাটিংয়ে ব্যস্ত থাকেন। যে কথাগুলো মোবাইল ফোনে পাঁচ কিংবা দশ মিনিটে বলা সম্ভব তা চ্যাটিংয়ে দীর্ঘ সময় লাগে। এই দীর্ঘ সময় চ্যাটিংয়ের কারণে চোখ কিংবা অন্যান্য বেশ কিছু ক্ষতি হয় আমাদের।

চিকিৎসকদের কাছে যেসব রোগীরা যান তাদের অধিকাংশেরই পিঠে ব্যথা, মাথা ব্যথা, ঘাড়ে ব্যথা, গাঁটে ব্যথা কিংবা হাতের ব্যথায় ভুগেন তারা। এ জন্য চিকিৎসকরা অতিরিক্ত মোবাইল ফোন ব্যবহার থেকে বিরত থাকার পরামর্শ দিয়ে থাকেন।

স্বাভাবিকভাবেই দীর্ঘক্ষণ মোবাইল ফোন ব্যবহার করলে হাতের পেশী ও লিগামেন্টের উপর চাপ পড়ে। দীর্ঘদিন এমনটা হতে থাকলে এই ব্যথা মেরুদণ্ডের উপরেও প্রভাব ফেলে। এতে মেরুদণ্ডও বেঁকে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। কেউ কেউ আবার এই ব্যথাকে বাতের ব্যথার সঙ্গে মিলিয়ে ফেলেন। এমন অবস্থায় পরিস্থিতি আরও খারাপ হওয়ার আগে যেসব বিষয়ে সতর্কতা নেয়া উচিত তা জেনে নেয়া যাক-

মোবাইল ফোনে চ্যাটিংয়ের পরিমাণ কমাতে হবে। প্রয়োজনে ফোনে সরাসরি কথা বলুন।
ফোন কেনার সময় খেয়াল রাখা উচিত, ফোন যেন বেশি ভারী না হয়। ভারী ফোন হাতে থাকলে পেশীর ওপর চাপ বেশি পড়ে।
ফোন ব্যবহারের সময় ঘাড় নিচু বা বাঁকা না করে সরাসরি সোজা হয়ে ফোনে চোখ রাখা উচিত। এতে মাথা ও ঘাড়ের ওপর কম চাপ পড়বে।

প্রয়োজনে কিছু ফ্রি হ্যান্ড এক্সারসাইজ করতে পারেন। আবার মেরুদণ্ডের সংলগ্ন পেশী সচল রাখার জন্য নিয়ম করে যোগাসন করতে পারেন।
প্রয়োজনে একটি মোবাইল ফোন স্ট্যান্ড কিনতে পারেন। তাতে ফোন রেখে ব্যবহার করলে সমস্যা থেকে অনেক মুক্তি পাওয়া যাবে।
এছাড়া যাদের ঘাড়, কোমর বা পিঠে ব্যথা তারা বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা ও ফিজিওথেরাপি শুরু করুন।

এছাড়া যাদের সমস্যা আরও বেশি তাদের দেরি না করে বিশেষজ্ঞ কোনো চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়া উচিত।

Latest news

00

Related news