Friday, August 12, 2022

প্রাক্তনকে শরীরে নিয়ে ঘুরতে রাজি নন, রীতেশের নাম মুছতে যন্ত্রণা সইলেন রাখি!

রাখি সাওয়ান্ত মানে বিতর্ক আর ড্রামা। অবৈধ বিয়ের পর্বে ইতি টেনে রাখি ফের সিঙ্গল। তবে প্রাক্তন স্বামীকে শরীরে বয়ে বেড়াতে চান না রাখি। তাই রীতের নাম নিজের পিঠ থেকে মুছে ফেললেন রাখি সাওয়ান্ত। ২০১৯ সালের অগস্ট মাসে ইনস্টাগ্রাম পোস্টে কনের সাজে ছবি পোস্ট করে রাখি জানিয়েছিলেন নিজের বিয়ের কথা। যদিও সেই বিয়েটা ছিল একটা রহস্য। জানা গিয়েছিল ব্রিটিশ যুক্তরাজ্য স্থিত রীতেশ নামের কোনও ব্যবসায়ীকে বিয়ে করেছেন রাখি। কিন্তু তাঁর একটা ছবিও সামনে আসেনি।

বিগ বস ১৪-র মঞ্চে গিয়ে বরকে নিয়ে কম নাটক করেননি রাখি। ক্যামেরার সামনে বারবার স্বামীকে প্রকাশ্যে আসবার আর্জি রেখেছিলেন। যদিও রীতেশ পাত্তা দেননি সেই আবেদনে। অবশেষে বিগ বস সিজন ১৪-র মঞ্চে বরকে নিয়েই হাজির হন রাখি। প্রথমবার প্রকাশ্যে আসেন রাখি সাওয়ান্তের স্বামী। কিন্তু দিন যেতে না যেতেই রীতেশের ‘আসল চেহরা’ সামনে আসে। বিগ বসের ঘরেই জানা গিয়েছিল রীতেশের স্ত্রী এবং পুত্র রয়েছে। রাখির সঙ্গে রীতেশের বিয়ের কোনও আইনি স্বীকৃতি নেই। এই কথা অজানা ছিল না রাখিরও। সংবাদমাধ্যমরে সামনে এসে রীতেশের স্ত্রী স্নিগ্ধ প্রিয়া রীতেশের বিরুদ্ধে গার্হস্থ্য হিংসেরও অভিযোগ তুলেছিলেন। এতকিছু সত্ত্বেও রীতেশের সঙ্গে সংসার পাততে আগ্রহ দেখিয়েছিলেন তিনি, চেয়েছিলেন রীতেশের সন্তানের মা হতে। তবে অল্প কয়েকদিনেই ছন্দপতন। গত ১৪ই ফেব্রুয়ারি প্রেম দিবসের দিনই রীতেশের সঙ্গে বিচ্ছেদের ঘোষণা করেন রাখি। আর এবার রীতেশের স্মৃতিটুকু চিরতরে মুছে ফেললেন।

ট্যাটু মুছতে কম যন্ত্রণা সইতে হল না রাখিকে। ফ্যানেদের উদ্দেশে রাখির বার্তা, ‘তিন বছরের বিয়ে… রীতেশ অবশেষে তুমি আমার জীবন থেকে আর আমার শরীর থেকে বেরিয়ে গেলে। জীবনে কোনওদিন ট্যাটু করানো উচিত নয় ভালোবাসায় পাগল হয়ে। কারণ মুছে ফেলাটা বেশ কষ্টসাধ্য’।

বিচ্ছেদের কথা ঘোষণা করে রাখি লিখেছিলেন, ‘বিগ বস শো-র পর অনেক কিছু হয়েছে। যার মধ্যে অনেক কিছু আমার অবগত ছিল না, আমার হাতেও ছিল না। আমরা আমাদের ভুল বোঝাবুঝি মিটিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেছিলাম, চেষ্টা করেছিলাম যাতে সবকিছু ঠিকভাবে কাজ করে। কিন্তু বন্ধুত্বপূর্ণভাবে আমাদের আলাদা হয়ে যাওয়াই সবচেয়ে ভালো, যাতে আমরা আলাদা আলাদাভাবে নিজেদের জীবন উপভোগ করতে পারি।’

সূত্র: হিন্দুস্থান টাইমস্

Latest news

00

Related news