Sunday, August 14, 2022

ফেলে দেওয়া তরমুজের খোসাতে রয়েছে অবিশ্বাস্য পুষ্টিগুণ

স্বাদ ও পুষ্টিতে পরিপূর্ণ একটি গ্রীষ্মকালীন ফল হচ্ছে তরমুজ। গরমে শরীর ঠান্ডা রাখতে রসালো এই ফলটির জুড়ি নেই। তরমুজে রয়েছে ৯২ শতাংশ পানীয় উপাদান, যা শরীরের প্রয়োজনীয় পানির চাহিদা পূরণ করে।

কিন্তু তরমুজ খাওয়া হলেও এর খোসা ফেলে দেন সবাই। জেনে অবাক হবেন যে, শুধু তরমুজ নয়, এর খোসাতেও রয়েছে প্রচুর পুষ্টিগুণ। তরমুজ খেতে গিয়ে অনেক সময়ে ভুল করে তরমুজের সাদা অংশ পেটে চলে যায়।

পুষ্টিবিদরা বলেন, তরমুজের বাকি অংশের তুলনায় খোসার সাদা অংশ অনেক বেশি উপকারী। এতে ফাইবারের পরিমাণ বাকি তরমুজের তুলনায় অনেক বেশি। এতে সুগারের মাত্রাও কম।

বিস্বাদ বলে তরমুজের যে সাদা অংশটি সবাই ফেলে দেয় ওটাই আসলে সবচেয়ে বেশি উপকারী।ফেলে না দিয়ে কেন খাবেন তরমুজের খোসা? চলুন জেনে নেয়া যাক-

উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করতে
তরমুজের খোসায় রয়েছে ‘সাইট্রুলিন’ নামক এক ধরনের অ্যামিনো অ্যাসিড, যা রক্তনালীগুলোকে প্রসারিত করে এবং রক্ত সঞ্চালন বাড়াতে সাহায্য করে। এতে উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকি কমে।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে
তরমুজের খোসায় রয়েছে ভিটামিন সি। শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে ভিটামিন সি দারুণ কার্যকর। ভাইরাসজনিত রোগের সঙ্গে লড়তে খেতে পারেন তরমুজের খোসার সাদা অংশ।

ত্বকের যত্নে
বয়স বাড়লে ত্বকে বলিরেখা পড়ে যায়। বিভিন্ন দাগছোপ দেখা দেয়। তরমুজের খোসায় রয়েছে লাইকোপেন, ফ্ল্যাভোনয়েড এবং অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট উপাদান। ত্বকের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে এই উপাদানগুলো অত্যন্ত উপকারী।

ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে
তরমুজের খোসায় ক্যালোরির পরিমাণ খুব কম। এছাড়াও এতে থাকা ফাইবার বিপাকক্রিয়াতেও দারুণ সাহায্য করে। যারা ওজন কমাতে চাইছেন প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় রাখতে পারেন তরমুজের খোসা।

তবে খোসার সাদা অংশটি শুধু খাওয়ার উপযোগী। বাইরের সবুজ অংশটি নয়। ভুল করে সবুজ অংশটি খেয়ে ফেললে হজমের সমস্যা দেখা দিতে পারে।

Latest news

00

Related news